কিয়বাতে বৈধতা পেল সমলিঙ্গ বিয়ে

দেশের সংবিধানে সংশোধন আনতে যাচ্ছে সমাজতান্ত্রিক কিউবা রাষ্ট্র। যে সংস্কারগুলো আনা হচ্ছে তার মধ্যে প্রেসিডেন্টের মেয়াদ ও সমলিঙ্গের মধ্যে বিয়ের বৈধতাও রয়েছে। এ সংশোধনের উদ্দেশ্য হলো দেশটির অর্থনীতি ও সমাজ কাঠামোতে অপরিবর্তনীয় সমাজতান্ত্রিক আদর্শকে পূর্ণমাত্রায় বিকশিত করা। খবর বিবিসি।

দেশটির প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ কানেলের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা বিবিসি জানায়, সাবেক প্রেসিডেন্ট রাহুল কাস্ত্রো এ সম্ভাব্য সংস্কারের নেতৃত্ব দেবেন। এপ্রিলে কানেল দেশটির নতুন নেতা হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।

প্রথমে ফিদেল কাস্ত্রো ও পরে রাহুল কাস্ত্রো ১৯৫৯ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত কিউবা শাসন করেন।

ডায়াজ কানেল একজন স্বীকৃত সমাজতান্ত্রিক হিসেবে পরিচিত। দায়িত্ব গ্রহণের অভিষেক অনুষ্ঠানে তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন, যারা পূঁজিবাদ প্রতিষ্ঠা করার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন, তাদের কিউবাতে কোনো জায়গা হবে না।

দেশটিতে সর্বশেষ ২০০২ সালে সাংবিধানিক পরিবর্তন এনে ডিক্রি জারি করা হয়। ওই ডিক্রিতে বলা হয়, কিউবার রাজনীতিতে সমাজতান্ত্রিক বৈশিষ্ট্য অপরিবর্তনীয়। তবে দেশটির অর্থনীতি ও ভবিষ্যৎ সামাজিক বিষয়ে পার্লামেন্ট কী সিদ্ধান্ত নেয়, তা দেখার জন্য সাধারণ কিউবানদের গভীর আগ্রহ রয়েছে।

বিবিসির কিউবা প্রতিনিধি তার প্রতিবেদনে বলেন, কিউবার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের প্রত্যাশা, এ সংস্কারের মধ্যমে অধিকতর মিশ্র অর্থনীতির দিকে অগ্রসর হবে দেশটি। এদিকে সমকামী, উভকামী এবং হিজড়া সম্প্রদায়ের সংগঠন-এলজিবিটি কর্মীরা বলছেন, শুধু নারী ও পুরুষদের মধ্যে বিয়ে হওয়ার বাধ্যবাধকতার বিষয়টিতেও পরিবর্তন আসবে বলে তারা আশা করছেন।

তবে কবে নাগাদ এ সংস্কার আসবে-সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। এসব সংস্কার পর্যায়ক্রমে করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Facebook Comments
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •